মাদারীপুরে ঘরের দরজা ভেঙ্গে ২ শিশুর মরদেহ উদ্ধার করলো পুলিশ, অভিযুক্ত মা আটক

মাদারীপুর প্রতিনিধি :
মাদারীপুরে ঘরের দরজা ভেঙ্গে দুই শিশু ভাইবোনের মরদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ। শ্বাসরোধে হত্যার ঘটনায় অভিযুক্ত মা তাহমিনা আক্তারকে আটক করেছে পুলিশ। বুধবার বিকেলে মাদারীপুর শহরের সবুজবাগ এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। নিহত ৩ বছরের জান্নাত, এক বছর বয়সী মেহরাজের মরদেহ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য পাঠানো হয় মাদারীপুর জেলা সদর হাসপাতালের মর্গে।
জানা যায়, বুধবার বিকেলে পুলিশের জরুরি সেবা ত্রিপল নাইনে কল পেয়ে ঘটনাস্থলে আসে থানা পুলিশের পাশাপাশি জেলার পুলিশের শীর্ষ কর্মকর্তারা। পরে ঘরের দরজা ভেঙ্গে ভেতরে গিয়ে বিছানা পড়ে থাকতে দেখে ৩ বছরের জান্নাত, এক বছর বয়সী মেহরাজের মরদেহ। পাশেই বসে ছিল মা তাজমিনা আক্তার।
এলাকাবাসী জানায়, দেড় মাস আগে মাদারীপুর শহরের সবুজবাগ এলাকার জাহাঙ্গীর আলমের তিনতলা ভবনের নিচতলা ভাড়া নেন শরিয়তপুরের পালং থানাধীন চিকনদি গ্রামের তারা মিয়া সরদার। মঙ্গলবার সকালে তারা মিয়ার মেয়ে ও শরিয়তপুরের পালং থানাধীন পশ্চিম সারেং গ্রামের হালিম খানের স্ত্রী তাহমিনা আক্তার দুই সন্তানকে নিয়ে মাদারীপুরে বেড়াতে আসে। বুধবার দুপুরে তাহমিনার মা নারগিস বেগম বাড়ির ছাদে জামাকাপড় রোদে শুকাতে দিতে গেলে ঘরের দরজা বন্ধ করে দেয় সে। অনেক ডাকচিৎকারে দরজা না খুললে পুলিশের জরুরি সেবা ত্রিপল নাইনে কল দেয় স্থানীয়রা। পরে পুলিশ গিয়ে নিহত দুই শিশুর মরদেহ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য জেলা সদর হাসপাতালের মর্গে পাঠায়। এই ঘটনায় অভিযুক্ত ভারসাম্যহীন তাহমিনা আক্তারকে আটক করা হয়েছে।
মাদারীপুর অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মো. মনিরুজ্জামান ফকির জানান, দরজা বন্ধ থাকা অবস্থায় আমাদের অফিসার ইনচার্জ মা ও দুই সন্তানের লাশ উদ্ধার করেছে। এ ঘটনার খবর পেয়ে পুলিশ সুপার স্যারসহ আমরা ঘটনাস্থলে চলে আসি। প্রাথমিক ভাবে ধারনা করা হচ্ছে শ্বাসরোধ করে হত্যা করা হয়েছে। মা তাহমিনা আক্তারকে আটক করে থানা হেফাজতে রেখে ২ শিশুর লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য সদর হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।