মিথ্যা মামলার আতঙ্কে মাদারীপুরের ভদ্রখোলাবাসী

Madaripur 09-01-2020 (Bhadarkhola Village) Pic.

মাদারীপুর প্রতিনিধি :
স্থানীয় প্রভাব বিস্তার, মারামারি আর দলাদলির ঘটনায় মিথ্যে মামলা দিয়ে হয়রানির আতঙ্কে দিন কাটাচ্ছেন মাদারীপুর সদর উপজেলার ঘটমাঝি ইউনিয়নের ভদ্রখোলাবাসী। ভদ্রখোলা আদর্শ ক্লাব নামে একটি সামাজিক সংগঠনকে পুড়িয়ে প্রতিপক্ষকে ফাঁসাতে অর্ধশত ব্যক্তিকে বিবাদী করে এরই মধ্যে চীফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে অভিযোগ দিয়েছে বাচ্চু শেখ নামের এক ব্যক্তি। নিরহ ব্যক্তিদের বিবাদী করে অভিযোগ দেয়ায় ফুঁসে উঠেছে স্থানীয়রা।
সরেজমিনে গিয়ে জানা যায়, সদর উপজেলার ঘটমাঝি ইউনিয়নের ভদ্রখোলা গ্রামে দীর্ঘদিন ঘরে ইসমাইল মোল্লা গ্রুপের সাথে জলিল মোল্লা গ্রুপের শত্রুতা চলে আসছে। গত কয়েকবছর ধরে এই দুই গ্রুপের সংর্ঘষে মারা গেছে পাঁচ জন মানুষ। হামলা-মামলায় জর্জরিত হয়েছে পাঁচ শতাধিক নিরিহ সাধারণ মানুষ। গত ১ জানুয়ারী ‘ভদ্রখোলা আদর্শ সংস্থা’ নামে একটি সামাজিক সংগঠনে আগুন লাগানোর ঘটনা দেখিয়ে ৮ জানুয়ারি চীফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে একটি অভিযোগ দায়ের করেন ইসমাইল মোল্লা সমর্থিত বাচ্চু শেখ নামের এক ব্যক্তি। যেখানে জলিল মোল্লাসহ এলাকার নিরিহ ৪৩ জনের নাম উল্লেখ করে একটি অভিযোগ দেন। এতে এলাকার নিরহ ব্যক্তিদেরও জড়ানো হয়। যা নিয়ে ফুঁসে উঠেছে স্থানীয় সাধারণ মানুষ। স্থানীয়রা অভিযোগ করেন, ভদ্রখোলা আর্দশ সংস্থাটি বাচ্চু শেখরা নিজেরা আগুন লাগিয়ে মিথ্যে মামলা দিয়ে হয়রানি করছে। যা এলকাবাসীও দেখেছে। এতে ইসমাইল মোল্লার সহযোগিতা রয়েছে।
এব্যাপারে জলিল মোল্লা বলেন, ‘ইসমাইল মোল্লা তার লোকজন দিয়ে ভদ্রখোলা আর্দশ সংস্থাটি আগুন দিয়ে পোড়ানোর চেষ্টা করে। পরে লোকজন দেখে ফেললে তারা পালিয়ে যায়। এখন আমাদের এলাকার নিরিহ মানুষের বিবাদী করে কোর্টে অভিযোগ দিয়েছে। আমরা এলাকাসী শান্তি চাই। যাতে কেউ হয়রানি না হয়।’
আদালতে মামলার বিষয় বিবাদী বাচ্চু শেখের সাথে কথা বলতে ভদ্রখোলা এলাকায় গিয়েও তাকে পাওয়া যায়নি। তার সমর্থিক ইসমাইল মোল্লার সাথে একাধিকবার যোগাযোগ করেও মামলার বিষয় বক্তব্য পাওয়া যায়নি।
মাদারীপুর সদর থানার ওসি সওগাতুল আলম বলেন, ‘আদালত থেকে তদন্তের জন্যে এখনো কোন কাগজপত্র পাইনি। যদি পাই তাহলে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে। তদন্তে কোন গাফিলতি করা হবে না।’ আইন-শৃঙ্খলার পরিস্থিতির বিষয় অতিরিক্ত পুলিশ সুপার বদরুল আলম মোল্লা জানান, ‘ওই এলাকাটি দিন দিন ভয়ংকর হয়ে উঠছে। যে কারণে আমরা বিষয়টি কঠোর নজরদারিতে রেখেছি। যে কোন ঘটনা ঘটলেই আমরা দ্রুত গিয়ে পরিস্ত্রিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে পারছি। ওই এলাকায় অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়ন করা আছে।’

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

You may use these HTML tags and attributes: <a href="" title=""> <abbr title=""> <acronym title=""> <b> <blockquote cite=""> <cite> <code> <del datetime=""> <em> <i> <q cite=""> <strike> <strong>

Free WordPress Themes - Download High-quality Templates