শিবচরে ৪ শিশুসহ ২২ ডেঙ্গু রোগী হাসপাতালে চিকিৎসাধীন

Shibchar Dengu-11.8.19-2Shibchar Dengu-11.8.19-1

শিব শংকর রবিদাস, মোঃ রিফাত ইসলাম ও কমল রায় ঃ
শিবচর হাসপাতালে দিন দিন বাড়ছে ডেঙ্গু আক্রান্ত রোগীর সংখ্যা। বর্তমানে ৪ শিশুসহ ২২ জন ডেঙ্গু আক্রান্ত রোগী শিবচর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি রয়েছে। চিকিৎসকরা তাদের সেবা দিয়ে যাচ্ছেন। এর আগে ডেঙ্গু আক্রান্ত হয়ে শিবচর হাসপাতালে ১ জন ও ঢাকায় ১ জনের মৃত্যু হয়েছে।
হাসপাতাল সূত্রে জানা যায়, দিন দিন উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ডেঙ্গু আক্রান্ত রোগী ভর্তি সংখ্যা বাড়ছে । রবিবার ৮ জন ভর্তিসহ এ পর্যন্ত ৬১ জন ডেঙ্গু আক্রান্ত রোগী ভর্তি হন। তার মধ্যে প্রতিনিয়তই কিছু রোগী চিকিৎসা নিয়ে সুস্থ্য হয়ে বাড়ি ফিরে যাচ্ছে। আবার কিছু কিছু নতুন রোগী ভর্তি হচ্ছেন। আর উন্নত চিকিৎসার জন্য কিছু রোগীকে ঢাকা, ফরিদপুরসহ অন্যত্র পাঠিয়ে দেওয়া হয়েছে। বর্তমানে ৪ শিশুসহ ২২ জন ডেঙ্গু আক্রান্ত রোগী হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছে। বর্তমানে হাসপাতালে মিরাজ (১২), আক্তার হোসেন (১৫), আঃ রহিম (১৬), সাকিব (১৫), রাবেয়া বেগম (৫০), আমেনা বেগম (৩৫), পারভীন বেগম (৩৫), সাহিদা বেগম (৩৮), মমতাজ বেগম (৪৪), মাকসুদা বেগম (৩০) ,আকবর মাতুব্বর (৩২), জাহিদুল ইসলাম (১৯), আকমান (১৮), রিপন (১৮), জুয়েল (২৫), বিএম এমরান (২৭), ঠান্ডু (৪৫), আজিজুল (১৮), মতি মিয়াসহ (৪০) ১২ জন ডেঙ্গু আক্রান্ত রোগী চিকিৎসাধীন রয়েছেন। চিকিৎসকরা তাদের চিকিৎসা কার্যক্রম চালিয়ে যাচ্ছেন। এর আগে উপজেলার বন্দর খোলা ইউনিয়নের মল্লিক কান্দি গ্রামের খবির হাওলাদারের ছেলে রিপন হাওলাদার (৩০) ডেঙ্গু জ¦রের ভাইরাস নিয়ে গত ২ আগস্ট ঢাকা থেকে শিবচর উপজেলায় তার নিজ বাড়ীতে আসেন। ওই দিনই তিনি শিবচর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসা নিয়ে চলে যান। পরের দিন ৩ আগষ্ট তিনি স্থানীয় পাঁচ্চর প্রাইভেট ক্লিনিকে চিকিৎসা গ্রহণ করেন। ৪ আগষ্ট রবিবার রাতে রিপন হাওলাদার গুরুতর অসুস্থ্য হয়ে পড়লে শিবচর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে পুনরায় আনলে কর্মতব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন। এর আগে গত ২৬ জুলাই শুক্রবার উপজেলার পুরাতন ফেরিঘাট এলাকার সলু বেপারীর কান্দি গ্রামের বাবু খানের ছেলে ফারুক(২২) খানকে প্রচন্ড জ্বরে আক্রান্ত অবস্থায় শিবচর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে আনলে তার অবস্থা আশংকাজনক হওয়ায় কর্তব্যরত চিকিৎসক উন্নত চিকিৎসার জন্য তাকে ঢাকায় পাঠান। ঢাকার ইসলামিয়া হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় ৩১ জুলাই বুধবার বিকেলে তার মৃত্যু হয়।
শিবচর উপজেলা পরিবার ও পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডাঃ মোঃ আব্দুল মোকাদ্দেস বলেন, ঢাকার পাশর্^বর্তী হিসেবে শিবচরেও বর্তমানে ডেঙ্গু ভাইরাস আক্রান্ত রোগীর সংখ্যা বৃদ্ধি পাচ্ছে। ভর্তিকৃত রোগীদের আমরা সাধ্যমত চিকিৎসা সেবা দিয়ে যাচ্ছি। প্রতিদিনই কিছু রোগী সুস্থ্য হয়ে ফিরে যাচ্ছে আবার নতুন রোগীও ভর্তি হচ্ছে। কোন রোগীকে আশংকাজনক মনে হলে সাথে সাথে উন্নত চিকিৎসার জন্য ঢাকা অথবা ফরিদপুর পাঠিয়ে দেওয়া হচ্ছে।

শিবচর হাসপাতালে দিন দিন বাড়ছে ডেঙ্গু আক্রান্ত রোগীর সংখ্যা। বর্তমানে ৪ শিশুসহ ২২ জন ডেঙ্গু আক্রান্ত রোগী শিবচর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি রয়েছে। চিকিৎসকরা তাদের সেবা দিয়ে যাচ্ছেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

You may use these HTML tags and attributes: <a href="" title=""> <abbr title=""> <acronym title=""> <b> <blockquote cite=""> <cite> <code> <del datetime=""> <em> <i> <q cite=""> <strike> <strong>

Free WordPress Themes - Download High-quality Templates