দুদক পদ্মা সেতু রেললাইন প্রকল্প ও তাত পল্লীর অবৈধ স্থাপনা এলাকায়,ব্যবস্থা নেয়ার ঘোষনা

Shibchar Padma bridje railway & Tat Polli Elegal House Area Dudok Visit-1 Shibchar Railway & tatpolli Dudok Visnt

রিপোর্টঃ শিব শংকর রবিদাস, সুজন পাল ছবিঃ কমল রায়ঃ
এই প্রথম দূর্নিতী দমন কমিশনের একটি টিম পদ্মা সেতু রেললাইন প্রকল্প ও শেখ হাসিনা তাত পল্লীর প্রস্তাবিত স্থান পরিদর্শন করেছেন । এসময় শিবচর উপজেলা দূর্নিতী প্রতিরোধ কমিটির নেতৃবৃন্দও উপস্থিত ছিলেন। সরকারের কোটি কোটি টাকা লোপাটের জন্য এই দুই প্রকল্পে অবৈধ ঘর বাড়ি স্থাপনা গাছ পালা লাগানোর খবরে দুদকের এই টিমটি মাদারীপুরের শিবচর ও শরীয়তপুরের জাজিরা অংশ পরিদর্শন করেন। পরিদর্শনকালে তারা নির্মিত বিভিন্ন ঘর বাড়ি ও বাগানসহ বিভিন্ন অবৈধ স্থাপনা সরেজমিনে ঘুরে দেখে ব্যাবস্থা নেওয়ার ঘোষনা দেন।
জানা যায়, পদ্মা সেতু রেললাইন প্রকল্প সম্প্রসারনের খবরে ও শেখ হাসিনা তাত পল্লীর শিবচর,জাজিরাসহ প্রস্তাবিত এলাকায় শতশত অবৈধ ঘর-বাড়ি, স্থাপনা নির্মান করে সরকারের কোটি কোটি টাকা লোপাটের পায়তারা করছে এক শ্রেনীর অসাধু দালাল চক্র। এনিয়ে সম্প্রতি বিভিন্ন গনমাধ্যমে সংবাদ প্রকাশ পাওয়া ও দুদকের হটলাইন ১০৬ এ অভিযোগের প্রেক্ষিতে মঙ্গলবার দুপুরে দুদকের ফরিদপুর সমন্বিত জেলা কার্যালয়ের একটি টিম মাদারীপুরের শিবচরের কুতুবপুর ও শরীয়তপুরের জাজিরার নাওডোবা অংশের পদ্মা সেতু রেললাইন প্রকল্প ও শেখ হাসিনা তাত পল্লীর প্রস্তাবিত স্থান পরিদর্শন করেন। পরিদর্শনকালে দুদক কর্মকর্তারা এ দুটি মেগা প্রকল্প এলাকায় শতশত অবৈধ ঘর-বাড়ি, স্থাপনা দেখে হতাশা প্রকাশ করে দ্রুত ব্যাবস্থা নেয়ার কথা জানান। দুদকের ফরিদপুর সমন্বিত জেলা কার্যালয়ের সহকারী পরিচালক কমলেশ মন্ডল, উপ সহকারী পরিচালক রাজ কুমার সাহা ও সৌরভ রায় প্রমূখ। এসময় শিবচর উপজেলা দূর্নিতী প্রতিরোধ কমিটির নেতৃবৃন্দও তাদের সাথে উপস্থিত ছিলেন।
দুর্নিতী দমন কমিশনের উপ সহকারী পরিচালক রাজ কুমার সাহা বলেন, পরিদর্শনে এসে আমরা লক্ষ্য করছি পদ্মা সেতুর রেল লাইন সম্প্রসারন ও তাত পল্লীর প্রস্তাবিত এলাকায় শত শত অবৈধ স্থাপনা নির্মান ও গাছপালা লাগিয়েছে সরকারের টাকা আত্মসাত করার জন্য । অথচ এসকল ঘরবাড়িতে কেউই থাকে না। তাত পল্লীর শিবচর অংশে ঘরবাড়ি উচ্ছেদ হয়েছে। এই দুই প্রকল্পে আমরা যে অনিয়মটা দেখে গেলাম আমরা দুদক প্রধান কার্যালয়ে রিপোর্ট আকারে পেশ করবো। এরসাথে যারা জড়িত ও চক্রের হোতাদের বিষয়টি আমরা রিপোর্টে উম্মোচিত করবো। এ এলাকায় আমরা তদন্ত শুরু করলাম । এখন থেকে তদন্ত ও অভিযান চলবে।
উল্লেখ্য, পদ্মা সেতু হয়ে ঢাকা- মুন্সীগঞ্জ-শরীয়তপুরের জাজিরা-মাদারীপুরের শিবচর-ফরিদপুরের ভাঙ্গা পর্যন্ত রেল লাইন নির্মানের জন্য ৩৫৮.৪১ হেক্টর জমি অধিগ্রহন হয়। সম্প্রতি রেল লাইন সম্প্রসারনের খবরে শিবচরসহ প্রকল্প এলাকাজুড়ে শত শত অবৈধ ঘর বাড়িসহ বিভিন্ন স্থাপনা নির্মান গাছ পালা লাগায় অসাধু চক্র। আর গত বছরের ১ নভেম্বর প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে ’শেখ হাসিনা তাত পল্লী’র ভিত্তিপ্রস্তর করেন। এ প্রকল্পের মোট ব্যয় ধরা হয়েছে ১৯ শ ১১ কোটি টাকা। প্রকল্পটির জন্য মাদারীপুরের শিবচর উপজেলার কুতুবপুরে ৬০ একর ও শরীয়তপুরের জাজিরার নাওডোবায় ৪৮ একর জায়গা নির্ধারন করা হয় । এ প্রকল্প এলাকায়ও সরকারের কোটি কোটি টাকা হাতিয়ে নিতে অসাধু চক্র শত শত ঘর বাড়িসহ অবৈধ স্থাপনা খামার গাছ পালা বাগান তৈরি করে। সম্প্রতি চীফ হুইপ নূর-ই-আলম চৌধুরী প্রকল্প এলাকায় পরিদর্শন করে এনিয়ে তীব্র ক্ষোভ প্রকাশ করলে শিবচর অংশে অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ করে প্রশাসন। তবে এখনো জাজিরার নাওডোবা অংশে স্থানীয়রা কিছু ঘরবাড়ি সরিয়ে নিলেও প্রশাসনিকভাবে উচ্ছেদ অভিযান শুরু হয়নি বলে জানায় স্থানীয়রা।

এই প্রথম দূর্নিতী দমন কমিশনের একটি টিম পদ্মা সেতু রেললাইন প্রকল্প ও শেখ হাসিনা তাত পল্লীর প্রস্তাবিত স্থান পরিদর্শন করেছেন ।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

You may use these HTML tags and attributes: <a href="" title=""> <abbr title=""> <acronym title=""> <b> <blockquote cite=""> <cite> <code> <del datetime=""> <em> <i> <q cite=""> <strike> <strong>

Free WordPress Themes - Download High-quality Templates