মুক্তিযুদ্ধ সংগঠকের সন্তানের অনন্য উদ্যোগেঃ মহান মুক্তিযুদ্ধের স্মৃতি সংরক্ষনে সারাদেশে শিবচর যেন দৃষ্টান্ত, নানান স্মৃতি স্তম্ভসহ উপজেলাজুড়ে লাল সবুজের সমারোহ

shibchar-cheaf-whip-mp-buddijebi-stombo-open3

সরেজমিন বিশেষ রিপোর্টঃ
মহান বিজয়ের মাসে যখন দেশের বিভিন্ন প্রান্ত থেকে মহান মুক্তিযুদ্ধ বা মুক্তিযোদ্ধাদের নিয়ে অবহেলার নানান খবর আসে। ঠিক তখনই মাদারীপুরের শিবচর উপজেলায় মহান মুক্তিযুদ্ধের স্মৃতি সংরক্ষনে শুধু দৃষ্টান্তই নয় ইতিহাস সৃষ্টি করছে। স্বাধীনতা স্মৃতি স্তম্ভ, সড়ক ৭১ , ৭১ চত্ত্বর, মুক্তিযোদ্ধা কমপ্লেক্স, শহীদ স্মৃতি স্তম্ভসহ নানান উদ্যোগের পর সবশেষ ১৪ ডিসেম্বর উদ্বোধন হয় বুদ্ধিজীবি স্মৃতি স্তম্ভ। এখানেই শেষ নয় উপজেলার বিভিন্ন সেতু, স্থাপনা,দোকানপাট সবকিছুতেই লাল সবুজের সমারোহ। এ উপজেলায় ঢুকতেই মনেহবে মুক্তিযুদ্ধ চেতনা সমৃদ্ধ উপজেলাটি। মুক্তিযোদ্ধাদের দাবী মুক্তিযুদ্ধ সংগঠক মরহুম ইলিয়াছ আহমেদ চৌধুরী দাদাভাইয়ের সন্তান স্থানীয় সংসদ সদস্য নূর ই আলম চৌধুরীর এ ধরনের উদ্যোগ সারাদেশে ছড়িয়ে দিলেই সংরক্ষিত হবে ৭১ এর মহান স্মৃতি।

shibchar-sadhinota-chottor
জানা যায় , ভৌগলিক কারনে পদ্মা সেতুসহ নানান কারনে দক্ষিনাঞ্চলের প্রবেশ দ্বার শিবচর উপজেলাটি বহুল পরিচিত ও গুরুত্বপূর্ন। মহান মুক্তিযুদ্ধে এই উপজেলার বীর সন্তানদের রয়েছে অনন্য অবদান। তৎকালীন প্রাদেশিক সরকারের এমএলএ বঙ্গবন্ধুর ভাগ্নে ইলিয়াছ আহমেদ চৌধুরী দাদাভাই ছিলেন মুজিব বাহিনীর অন্যতম সংগঠক। তার দিক নির্দেশনাতেই শিবচর থেকে পাশ^বর্ত্তী ৯ উপজেলায় যুদ্ধ পরিচালনা হয়। মহান মুক্তিযুদ্ধের স্মৃতি সংরক্ষনে মরহুম ইলিয়াছ আহমেদ চৌধুরী দাদাভাই এর বড় ছেলে স্থানীয় সংসদ সদস্য নূর ই আলম চৌধুরীর নানান উদ্যোগ দেশে বিরল দৃষ্টান্ত স্থাপন করছে। উপজেলাটিতে ঢুকতেই একের পর এক সেতু লাল সবুজের রংয়ে ঢাকা। মোড়ে মোড়ে কোথাও অস্ত্র তাক করে দাড়িয়ে আছে স্বাধীনতা স্তম্ভের বীর সেনানীরা কোথাও রয়েছে বঙ্গবন্ধুর মুড়্যাল।

shibchar-bongomata-vaskorjo

শহীদদের কবরের পাশে তৈরি করা হয়েছে শহীদ বেদী। যেখানে স্থানীয় শহীদদের যুদ্ধের ইতিহাস বর্ননা করা হয়েছে। পৌরবাজারে দীর্ঘ নতুন একটি সড়ক নামকরন করা হয়েছে সড়ক -৭১ নামে। যেখানে শতাধিক দোকানও রয়েছে। রয়েছে ৭১ চত্তরও। পৌর সভার বিভিন্ন রাস্তা ঘাট শহীদ মুক্তিযোদ্ধাদের নামকরন, স্কুলের বিভিন্ন ভবন মুক্তিযোদ্ধাদের নামকরন, বিভিন্ন সেতু মুক্তিযোদ্ধাদের নামকরন রয়েছে অহরহ। প্রায় প্রতিটি স্কুলে নির্মিত হয়েছে শহীদ মিনার। রয়েছে মুক্তিযোদ্ধা কমপ্লেক্স । বিভিন্ন বাজারের দোকানপাটও লাল সবুজ সাজে সজ্জিত। সর্বশেষ গত ১৪ ডিসেম্বর উদ্বোধন করা হয় বুদ্ধিজীবি স্মৃতি স্তম্ভ।

shibchar-71-chottor

সবমিলিয়ে এ যেন জাতীয় পতাকার লাল সবুজের সমারোহ সমৃদ্ধ উপজেলা।এসকল স্মৃতি স্তম্ভে স্ব স্ব দিবসে শিক্ষার্থীসহ সাধারন মানুষ শ্রদ্ধা জানানোয় প্রসার ঘটছে মুক্তিযুদ্ধের ইতিহাস। এছাড়াও স্থানীয় উপজেলা চেয়ারম্যান, উপজেলা আওয়ামীলীগের বর্তমান সভাপতিও বীর মুক্তিযোদ্ধা । সব মিলিয়ে সবক্ষেত্রেই মুক্তিযোদ্ধাদের প্রাধান্য বেশি। এ ধরনের উদ্যোগ সারাদেশে ছড়িয়ে দিলেই সংরক্ষিত হবে ৭১ এর মহান স্মৃতি এমনটাই দাবী মুক্তিযোদ্ধাদের ।
কলেজ ছাত্র রাসেল হোসেন বলেন , আমি মুক্তিযুদ্ধ দেখিনি । আমাদের শিবচরের মুক্তিযুদ্ধের ইতিহাস সর্ম্পকে কিছুই জানতাম না । গত কয়েক বছর ধরে রাস্তার মোড়ে মোড়ে মুক্তিযুদ্ধের বিভিন্ন ভাস্কর্যসহ বিভিন্ন স্থাপনা নির্মিত হয়েছে । তা থেকে মহান মুক্তিযুদ্ধে আমাদের এলাকার মুক্তিযোদ্ধাদের বিভিন্ন অবদান জানতে পারছি আর পুলকিত হচ্ছি ।

shibchar-muktijodha-complex
অভিভাবক কাশেম মিয়া বলেন, মুক্তিযুদ্ধর স্মৃতি সংরক্ষনে শিবচরে যে উদ্যোগ নেয়া হয়েছে সারাদেশে তা বিরল। এ উদ্যোগ সারাদেশে নেয়া হলে নতুন প্রজন্ম মুক্তিযুদ্ধ সম্পর্কে অনেক কিছু জানবে।
স্থানীয় ব্যবসায়ী শ্যামল চক্রবর্ত্তী বলেন, শিবচরের বাজারের সকল দোকানপাটই লাল সবুজের সমারোহ। এটা সবসময়ই আমাদের আন্দোলিত করে।
উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার শাজাহান চৌধুরী বলেন , মুক্তিযোদ্ধা কমপ্লেক্স , শহীদ মুক্তিযোদ্ধা স্মৃতি স্তম্ভ , স্বাধীনতা চত্ত্বর , ৭১ চত্ত্বর , শহীদ বুদ্ধীজীবী স্মৃতি স্তম্ভসহ মুক্তিযুদ্ধের স্মৃতি সংরক্ষনে সংসদ সদস্য নূর-ই আলম চৌধুরী যে উদ্যেগ নিয়েছেন তাতে আমরা সন্তষ্ঠ ।
পৌর মেয়র আওলাদ হোসেন খান বলেন , মুক্তিযুদ্ধের স্মুতি সংরক্ষনে আমাদের সংসদ সদস্যর নির্দেশে পৌরসভাসহ বিভিন্ন সংস্থার অর্থায়নে বিভিন্ন স্থাপনা নির্মান হচ্ছে ।

shibchar-muktijoddha-stombo-2
যুদ্ধকালীন সাত থানা এরিয়া কমান্ডার মোসলেমউদ্দিন খান বলেন, একজন মহান সংগঠকের সন্তান হওয়ার কারনেই সংসদ সদস্য লিটন চৌধুরীর মুক্তিযুদ্ধের টান বেশি। তাই সে নীরবে সারাদেশের মধ্যে শিবচরে লাল সবুজের বিল্পব ঘটাচ্ছেন।
যুদ্ধকালীন এরিয়া কমান্ডার ও উপজেলা আওয়ামীলীগ সভাপতি সামসুদ্দিন খান বলেন, মহান মুক্তিযুদ্ধে দাদাভাইয়ের নেতৃত্বে শিবচরের মুক্তিযোদ্ধারা সাহসী ভূমিকা নিয়েছিল। এটা একটি বিরল দৃষ্ঠান্ত স্থাপন মুক্তিযুদ্ধের স্মৃতি সংরক্ষনে ।
উপজেলা চেয়ারম্যান বীর মুক্তিযোদ্ধা আলহাজ¦ রেজাউল করিম তালুকদার বলেন , আমাদের সংসদ সদস্যর উদ্যেগ ছিল বলেই মুক্তিযুদ্ধের এত স্মৃতি সংরক্ষন করা আমাদের পক্ষে সম্ভব হয়েছে । এ ধরনের আরো উদ্যোগ অব্যাহত থাকবে।

shibchar-red-green-bridge
শিবচর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোঃ ইমরান আহমেদ বলেন , বাংলাদেশের বিভিন্ন উপজেলায় দায়ীত্ব পালন করেছি কিন্ত শিবচর উপজেলায় এসে নিজেকে সৌভাগ্যবান মনে করছি । মুক্তিযুদ্ধের স্মৃতি সংরক্ষনে এখানে যে সকল কার্য সম্পাদন করা হচ্ছে তা বিরল ।
মাদারীপুর-শিবচর আসনের সংসদ সদস্য নূর-ই আলম চৌধুরী বলেন , আমার পরিবারের বেশির ভাগ সদস্য মুক্তিযুদ্ধের নেতৃত্ব দিয়েছেন । আমার বাবাও একজন বীর মুক্তিযোদ্ধা ও মুক্তিযুদ্ধের সংগঠক। মহান মুক্তিযুদ্ধে শিবচরের মুক্তিযোদ্ধাদের অনেক ভূমিকা ছিল। তাই স্থানীয় মুক্তিযুদ্ধের ইতিহাস এবং যারা যুদ্ধে শহীদ হয়েছেন তাদের স্মৃতি সংরক্ষন করে রাখতে আমরা এই উপজেলাকে সেভাবেই গড়ে তোলার চেষ্ঠা করছি । মানুষ যাতে এই উপজেলায় পা রাখার সাথে সাথেই বুঝতে পারে আসলে এটা মুক্তিযোদ্ধার ঘাঁটি , শেখ হাসিনার ঘাঁটি । এ ধরনের উদ্যেগ অব্যাহত থাকবে ।

মাদারীপুরের শিবচর উপজেলায় মহান মুক্তিযুদ্ধের স্মৃতি সংরক্ষনে শুধু দৃষ্টান্তই নয় ইতিহাস সৃষ্টি করছে

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

You may use these HTML tags and attributes: <a href="" title=""> <abbr title=""> <acronym title=""> <b> <blockquote cite=""> <cite> <code> <del datetime=""> <em> <i> <q cite=""> <strike> <strong>

Free WordPress Themes - Download High-quality Templates